ePaper

২২৭ কোটি ক্ষতিপূরণের মামলায় রবিকে জবাব দিতেই হবে: হাইকোর্ট

২২৭ কোটি ক্ষতিপূরণের মামলায় রবিকে জবাব দিতেই হবে: হাইকোর্ট
জাতীয় অপরাধ ও আইন
বিচারিক আদালতে জবাব দাখিলের আদেশের বিরুদ্ধে মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটর রবি আজিয়াটা লিমিটেডের রিভিশন আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট।

এ আদেশের ফলে প্রতিষ্ঠানটির সাবেক প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাহতাব উদ্দিন আহমেদের ২২৭ কোটি টাকা দাবি করে দায়ের করা মামলায় রবি কর্তৃপক্ষকে জবাব দাখিল করতে হবে বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।
এ বিষয়ে করা এক আবেদনের শুনানি নিয়ে সোমবার (২৯ মে) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মহিউদ্দিন শামীমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

বিচারিক আদালতে মামলা দায়েরকারী মাহতাব উদ্দিনের পক্ষের আইনজীবী ব্যারিস্টার হাসান এম এস আজিম আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। আদালতে এদিন রবির পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার সোহান চৌধুরী।

আইনজীবী বলেন, রবি আজিয়াটা লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মাহতাব উদ্দিন আহমেদকে বেআইনিভাবে বরখাস্ত করা হয়। সেই বরখাস্তের ক্ষতিপূরণ চেয়ে প্রতিষ্ঠানটির কাছে ২২৭ কোটি টাকা দাবি করে মামলা করেন মাহতাব।

মামলায় আদালত রবি কর্তৃপক্ষকে জবাব দাখিলের নির্দেশ দেন। কিন্তু রবি কর্তৃপক্ষ মামলার জবাব আদালতে দাখিল না করে হাইকোর্টে রিভিশন আবেদন করেন। রিভিশনে জবাব দাখিল না করার নির্দেশনা চাওয়া হয়। হাইকোর্ট আজ রবির রিভিশন আবেদন খারিজ করে দেন। এ আদেশের ফলে রবি কর্তৃপক্ষকে আদালতে জবাব দাখিল করতে হবে।

গত বছরের ২২ আগস্ট মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটর রবি আজিয়াটা লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মাহতাব উদ্দিন আহমেদ প্রতিষ্ঠানটির কাছে ২২৭ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণের দাবি করে মামলা করেন। এ টাকা তিনি চেয়েছেন অবসর সুবিধা ও অন্যায়ভাবে চাকরিচ্যুতির ক্ষতিপূরণ বাবদ। ঢাকা যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ আদালতে এ মামলা করেন।

এতে রবি আজিয়াটা ছাড়াও প্রতিষ্ঠানটির সাবেক সিইও ইজাদ্দিন ইদ্রিস, বর্তমান বোর্ড চেয়ারম্যান থায়াপরান এসসাঙ্গারা পিল্লাইসহ সংশ্লিষ্টদের বিবাদী করা হয়।

২০১০ সালে মাহতাব উদ্দিন প্রধান আর্থিক কর্মকর্তা (সিএফও) পদে রবিতে যোগ দেন। ২০১৬ সালে হন সিইও। পরে ২০২১ সালে তাকে বরখাস্ত করা হয়।

আইনজীবী হাসান এমএস আজিম বলেন, মাহতাব উদ্দিন ২০২১ সালের ২ আগস্ট পদত্যাগপত্র জমা দেন, যা একই বছরের ৩১ অক্টোবর থেকে কার্যকর হওয়ার কথা।

রবির পরিচালনা পর্ষদ সে বছরের ৫ আগস্ট শর্তহীনভাবে সে পদত্যাগপত্র গ্রহণের কথা এক চিঠিতে তাকে জানায়। তবে ২০২২ সালের ২২ মে রবি আজিয়াটা গ্রুপ মাহতাব উদ্দিনকে চাকরিচ্যুত করার নোটিশ দেয়। হঠাৎ করে রবি মাহতাব উদ্দিনের বিরুদ্ধে ২০১৯ সালের একটি আর্থিক লেনদেনের বিষয়ে ২০২১ সালের ৭ অক্টোবর কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠায়। এ লেনদেন সম্পর্কে আজিয়াটা গ্রুপ ও রবির বোর্ড অবগত ছিল।