ePaper

আল—মদিনা ফার্মাসিউটিক্যালস লিঃ ‌ এর লেনদেন শুরু

আল—মদিনা ফার্মাসিউটিক্যালস লিঃ ‌ এর লেনদেন শুরু
পুঁজিবাজার কর্পোরেট সংবাদ

২৯ মে ২০২৩ তারিখে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ লিঃ এর সাথে আল—মদিনা ফার্মাসিউটিক্যালস লিঃ এর ডিএসই’র এসএমই বোর্ডে তালিকাভুক্তিকরণ চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠিত হয়। চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ডিএসই’র প্রধান নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা খায়রুল বাশার আবু তাহের মোহাম্মদ এবং     আল—মদিনা ফার্মাসিউটিক্যালস লিঃ এর পক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাকির হোসেন পাটওয়ারী নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন ডিএসই’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম. সাইফুর রহমান মজুমদার, এফসিএ, এফসিএমএ, আল—মদিনা ফার্মাসিউটিক্যালস লিঃ এর চেয়ারম্যান মোঃ বিল্লাল হোসেন, পরিচালক মোঃ কামরুল আলম, প্রাইম ব্যাংক ইনভেস্টমেন্ট লিঃ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও সৈয়দ এম ওমর তৈয়ব সহ প্রতিষ্ঠানসমূহের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

ডিএসই’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম. সাইফুর রহমান মজুমদার, এফসিএ, এফসিএমএ, বলেন, আজ (২৯ মে, ২০২৩ তারিখ) আল মদিনা ফার্মাসিউটিক্যালস যে নব যাত্রা শুরু হলো, তা ব্রান্ডিং এর মাধ্যমে তাদের ভবিষ্যৎ ব্যবসায়িক পরিকল্পনা করতে হবে। পাশাপাশি পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হবার পর কোম্পানিটি যে নতুন দায়িত্ব যোগ হলো সে বিষয়ে তাদের আরও সচেতন ও সতর্ক হতে হবে। একই সাথে কোম্পানিকে সর্বদা বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ নিরপেক্ষভাবে সংরক্ষণ করতে হবে। আমি কোম্পানিটির ভবিষ্যৎ সাফল্য কামনা করছি। 

আল—মদিনা ফার্মাসিউটিক্যালস লিঃ এর চেয়ারম্যান মোঃ বিল্লাল হোসেন বলেন, আমরা একটি সৎ উদ্দেশ্য নিয়ে পুঁজিবাজার এসেছি। আমরা বিনিয়োগকারীদের সব সময় একটি ভাল রিটার্ণ দেয়ার আশা রাখি। এছাড়াও, আমরা আগামী দিনে চলার পথে কমিশন ও এক্সচেঞ্জের সহযোগিতা আশা করছি যাতে আমরা নিজেদের দেশের একটি বৃহৎ ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানিতে পরিণত করতে পারি। 

ডিএসই’র প্রধান নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা খায়রুল বাশার আবু তাহের মোহাম্মদ বলেন, আমি আল—মদিনা ফার্মাসিউটিক্যালসকে ডিএসই’র এসএমই বোর্ডে তালিকাভুক্তির জন্য অভিনন্দন জানাচ্ছি। আমি মনে প্রাণে চাচ্ছি যাতে পুঁজিবাজার থেকে উত্তোলিত অর্থে তারা ব্যবসা সম্প্রসারণ করে বিনিয়োগকারীদের ভালো ডিভিডেন্ড দিতে পারে। আমি তাদের অনুরোধ করবো তারা যাতে তালিকাভুক্তির পর সকল কম্পস্নায়েন্স সঠিকভাবে পালন করে। আমি কোম্পানিটির সার্বিক সাফল্য কামনা করছি। 

উল্লেখ্য যে, কোম্পানিটি ১০ টাকা মূল্যের ৫০ লাখ শেয়ার ইস্যু করে শেয়ারবাজার থেকে ৫ (পাঁচ) কোটি টাকার মূলধন উত্তোলন করেছে। শেয়ারবাজার থেকে উত্তোলিত অর্থ কোম্পানিটি বিদ্যমান ব্যবসা সম্প্রসারণ, ঋণ পরিশোধ ও ইস্যু ব্যবস্থাপনা খরচ খাতে ব্যয় করবে।